বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৭:২০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

ছাতা-জায়নামাজ ছাড়া অন্যকিছু নয়, সময় নিয়ে ঈদগাহে আসার অনুরোধ

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১ মে, ২০২২
  • ৩১ বার দেখেছে

ঢাকা: জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাতে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নিরাপত্তার স্বার্থে মুসল্লিদের ছাতা-জায়নামাজ ছাড়া সঙ্গে অন্যকিছু না আনতে বলেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মুহা. শফিকুল ইসলাম।

জাতীয় ঈদগাহে আসা মুসল্লিদের তল্লাশি করে ভেতরে প্রবেশ করানো হবে, সেক্ষেত্রে কিছুটা বিলম্ব হওয়ার বিবেচনায় সবাইকে সময় নিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

রোববার (১ মে) জাতীয় ঈদগাহ ময়দানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

রাজধানীজুড়ে ঈদগাহ ও মসজিদ মিলিয়ে ১ হাজার ৪৬৮ স্থানে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, কোন কোন মসজিদে একাধিক জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এভাবে সারা শহরের ঈদগাহ ও মসজিদগুলোতে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। সব ঈদ জামাতকে ঘিরেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা হাতে নিয়েছে ডিএমপি।

জাতীয় ঈদগাহের নিরাপত্তায় ডগ স্কোয়াড দিয়ে আগে থেকে সুইপিং করা হবে। পুরো এলাকা সিসিটিভির আওতায় থাকবে। যারা আসবেন প্রয়োজনবোধে শারীরিক তল্লাশি করা হবে, এছাড়া সবাইকে আর্চওয়ের মধ্য দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করতে হবে।

জাতীয় ঈদগাহে চারস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, বিরুপ আবহাওয়ার কারণে এখানে ঈদ জামাত সম্ভব না হলে বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হবে। সেক্ষেত্রে সেখানেও একই ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। সব বড় জামাতে একই ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, অন্যান্যবারের তুলনায় এবারের ঈদ ব্যতিক্রম। গত ২ বছর করোনার কারণে উৎসবের উদ্দীপনা এতোটা ছিল না। এবার সর্বস্তরে অধিক উদ্দীপনায় ঈদ পালিত হবে। ঈদ কেন্দ্রীক নিরাপত্তার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ঈদগাহে আসার সময় ছাতা, জায়নামাজের বাইরে কিছু নিয়ে না আসার জন্য অনুরোধ করছি। প্রবেশপথে অনেক লম্বা লাইন হবে, সার্চ করে প্রবেশ করতে কিছুটা সময় লগে। তাই সবাইকে কিছুটা সময় হাতে নিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ঈদের জামাতে কোথাও কোন হামলার ঝুঁকি আছে বলে মনে করিনা। শোলাকিয়ায় যে ধরনের হামলা হয়েছে সেটি একেবারে ব্যক্তিকেন্দ্রিক। ঈদগাহের ইমামকে লক্ষ্য করে এ হামলা চালানো হয়েছিল। তাই এবার আমরা মনে করিনা এমন কোন হামলার সম্ভাবনা আছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ