সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শিবপুরের সাধারচর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী জহিরুল হকের শোডাউন। মাধবদীতে আওয়ামী লীগ নেতার মৃত্যুবার্ষিকী পালন পলাশে উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে মোটরসাইকেল চুরি জেলা পুলিশ, নরসিংদীর মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত পলাশের জিনারদীতে প্রফেসর কামরুল ইসলাম গাজীর উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত। বৃহস্পতিবার সারা দেশে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ কর্মসূচি দুনিয়া প্রবাসের ঘরঃ প্রিয় ভাই, বন্ধুঃ একদিন তোমার দুনিয়াকে ছাড়িয়া যাইতেই হইবে; সুতরাং ইহা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখে লাভ নেই : তথ্যমন্ত্রী পলাশের জিনারদীতে প্রফেসর কামরুল ইসলাম গাজীর উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত। নরসিংদীতে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১৫

স্কুল বন্ধ, উত্তাল ঢেউয়ে শ্রম বিকোচ্ছে শিশুরা

  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১
  • ২০ বার দেখেছে

এইচএম ফোরকান, দশমিনা (পটুয়াখালী)

 

উত্তাল ঢেউয়ে শ্রম বিকোচ্ছে পটুয়াখালীর দশমিনার তেঁতুলিয়া-বুড়াগৌরাঙ্গ নদীর তীরবর্তী এলাকার শিশু-কিশোররা। নদীর ভাঙা-গড়া খেলায় সর্বস্বহারা পরিবারের শিশু-কিশোর তারা। কোনো কোনো পরিবারের শিশু-কিশোররা লেখাপড়া করলেও মহামারি করোনাভাইরাসে স্কুল বন্ধ থাকায় পারিবারিক আয়ের লক্ষ্যে ঝুঁকে পড়েছে উত্তাল ঢেউয়ের শ্রমে।

উপজেলার পূর্বতীর ঘেঁষে উত্তর থেকে দক্ষিণে তেঁতুলিয়া-বুড়াগৌরাঙ্গ নামক নদী প্রবহমান। একই নদী এ দুই নামে পরিচিত।

শুক্রবার ও শনিবার সরেজমিন কথা হয় জেলেপল্লী খ্যাত সৈয়দ জাফর, গোলখালী এলাকায় জেলের নৌকায় শ্রম বিকাতে আসা শিশুদের সঙ্গে।

উপজেলার সৈয়দ জাফর গ্রামের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র সাইদ, সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ইছাদুল, গোলখালী এলাকার চতুর্থ শ্রেণির রহমান, পঞ্চম শ্রেণির রিফাত, চতুর্থ শ্রেণির সুমন ও পঞ্চম শ্রেণির ইমন জানায়, করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় তেঁতুলিয়া-বুড়াগৌরাঙ্গ নদীতে তারা বাবার সঙ্গে মাছ শিকারে নেমেছে।

পরিবারের আয়ের লক্ষ্যে কিশোরদের মধ্যে অষ্টম শ্রেণির রাকিব ও নবম শ্রেণির রিয়াদকে বাবার সঙ্গে নদীতে মাছ ধরতে দেখা যায়।

নদীভাঙন কবলিত এলাকার সর্বহারা পরিবারের শিশুরা আবার মাসিক বেতনে শ্রম বিকাতে দেখা যায়। গোলখালীর তরিকুলের জেলে নৌকায় মাসে মাত্র সাড়ে তিন হাজার টাকায় রাসেল (১১) ও শহিদুলের নৌকায় শান্ত (১২) সাড়ে ৫ হাজার টাকার বেতনে ঝুঁকিপুর্ণ পেশায় কাজ করছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তেঁতুলিয়া নদী ও বুড়াগৌরাঙ্গ নদের তীর ঘেঁষে দশমিনার, কাটাখালী, চরবাঁশবাড়িয়া, গোলখালী, হাজিরহাট, চরবোরহান গ্রামের শিশু শ্রমিকদের অধিকাংশ উত্তাল ঢেউয়ের মধ্যে জেলে নৌকায় শতাধিক শিশু  শ্রমিকের কাজ করছে। এছাড়াও উপজেলা দশমিনায় ইটভাঙা, সবজি বিক্রি, মুদিখানায় কাজ, খেলনা বিক্রি, ইজিবাইক চালনাসহ সব শ্রমবাজারে শিশুদের উপস্থিতি দেখা গেছে।

উপজেলা ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি সাবেক ইউপি সদস্য মো. নজরুল ইসলাম জানান, নদীর ভাঙা-গড়ায় এখানকার মানুষের জীবন-জীবিকা, প্রকৃতির সঙ্গে লড়াই করে একরকম বেঁচে থাকতে হয়।

দশমিনার ডা. ডলি আকবার মহিলা কলেজের প্রভাষক আবু সায়েম জানান, পারিবারিক কৃষি উৎপাদনে শিশু শ্রমিক দেখা গেছে। এ অঞ্চলে জেলে নৌকায় শিশুশ্রমিক দেখা যায়। গত ২০ বছরের মধ্যে শুধু করোনাকালে শিশু শ্রমিক আশঙ্কাজনক বেড়েছে।

দশমিনা উপজেলার বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা অন্বেষার নির্বাহী পরিচালক মো. মজিবর রহমান টিটো ও মানবাধিকার কমিশনের সহ-সভাপতি পিএম রায়হান বাদল জানান, করোনা সংকটের সময় অনেক পরিবারই টিকে থাকার কৌশল হিসেবে শিশুশ্রমকে বেছে নেয়। পারিবারিক আয় বৃদ্ধিতে শিশুশ্রম বিনিয়োগ চোখে পড়ার মতো। শিশু ও তাদের পরিবারগুলো ভবিষ্যতে একই ধরনের ধাক্কা সামলে নিতে বিকল্প পথ খুঁজে পাওয়া জরুরি। নদীয় তীরবর্তী এলাকায় জেলে নৌকায় কিংবা হাট-বাজারের হোটেল রেস্তোরাঁয়, ইজিবাইক চালনা সর্বত্র বিদ্যালয়গামী শিশুদের উপস্থিতি যেন বেড়েই চলেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আল আমিন জানান, নদীভাঙন কবলিত এলাকার শিশু-কিশোররা স্কুল বন্ধ থাকায় পরিবারের আর্থিক লাভের জন্য বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় ঝুঁকছে। তালিকা করে তাদের সহায়তা করা হবে।

উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসার মো. মনিরুল ইসলাম  জানান, শিশু শ্রমিকের সংখ্যা বিষয়ে গত ১০ বছরে আমাদের দাপ্তরিক পরিসংখ্যান হয়নি। করোনাপরবর্তী এ জাতীয় নির্দেশনা থাকলে সঠিক সংখ্যা বোঝা যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ